রাতে ঘুম ভেঙ্গে মোবাইলের ঘড়িতে দেখি
২.২৭। নিচে লেখা “1 New Message”। ভাবছি উঠে তাহাজ্জুদ পড়লে ভাল হয়, কিন্তু স্বভাবসুলভ আলস্য শরীরকে জড়িয়ে থাকল। ভাবতে লাগলাম মোবাইলের মেসেজটা কার? কল্পনার জগতে বিচরণ করতে করতে মনে হল: যদি মেসেজটা আল্লাহ তাআলার কাছ থেকে আসত: “…তুমি বিছানা ছেড়ে সালাতে দাঁড়ালে আমি তোমার ওপর সন্তুষ্ট হব…” তাহলে নিশ্চয়ই সমস্ত আলস্য ঝেড়ে উৎসাহ নিয়ে নামাযে দাঁড়িয়ে যেতাম? পরমুহূর্তেই মনে হল: তাই তো! আল্লাহ কি মেসেজ পাঠান নি?
“তাদের পাশ বিছানা থেকে আলাদা হয়, তারা ভয় ও আশা নিয়ে তাদের রবকে ডাকে।… কোন নফস জানে না তাদের জন্য চোখ জুড়ানো কী জিনিস লুকিয়ে রাখা হয়েছে, তারা যা করত, তার বিনিময় হিসেবে!”
সূরা আস সাজদা, ৩২ : ১৬-১৭
এটাই বাস্তবতা। আল্লাহর বাণী তো আমাদের
মাঝেই আছে। অথচ আমরা তা পড়ে দেখি না।
কল্যাণের প্রকৃত উৎস থেকে অমনোযোগী থেকে ছুটে বেড়াচ্ছি বহু বিভ্রান্তির পেছনে।